যারা সরকারি চাকরি পাননি তাদেরই ‘স্যার’ বলতে কষ্ট লাগে


০৯:৩১ পিএম, ২৬ মার্চ ২০২৩
যারা সরকারি চাকরি পাননি তাদেরই ‘স্যার’ বলতে কষ্ট লাগে - Ekotar Kantho
মির্জাপুর উপজেলার সহকারী উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা মো. আসাদুজ্জামান বাবুল ও তার ফেসবুক স্ট্যাটাস

একতার কণ্ঠঃ ‘স্যার’ সম্বোধন নিয়ে বিতর্কের মধ্যে বেফাঁস মন্তব্য করে বসলেন টাঙ্গাইলের মির্জাপুর উপজেলার সহকারী উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা মো. আসাদুজ্জামান বাবুল। এ বিষয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে দম্ভ করে স্ট্যাটাস দিয়েছেন তিনি।

শনিবার (২৫ মার্চ) সন্ধ্যায় ‘কবি বাবুল’ নামে তার ব্যবহৃত ফেসবুক আইডিতে তিনি লিখেছেন, ‘যিনি হাজারবার চেষ্টা করেও সরকারি চাকরি পাননি, তাদেরই ‘স্যার’ বলতে কষ্ট লাগে। সরকারি চাকরি পেতে কত কষ্ট, নিয়ে দেখুন।’

আসাদুজ্জামান বাবুলের বাড়ি মির্জাপুর উপজেলার তরফপুর ইউনিয়নের ডৌহাতলী গ্রামে। তিনি একযুগের বেশি সময় ধরে মির্জাপুর যুব উন্নয়ন অফিসে কর্মরত রয়েছেন।

এ বিষয়ে আসাদুজ্জামান বাবুল বলেন, ‘আমার এক বন্ধুকে উদ্দেশ করে এটি লিখেছিলাম, সবার উদ্দেশে নয়। পরে তা ডিলিট করে দিয়েছি।’

এ বিষয়ে টাঙ্গাইল যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক রওশন আরা বেগম জানান, ‘প্রত্যেককে ভেবে কথা বলতে হবে। আমরা সবাই প্রজাতন্ত্রের সেবক, সেটা সবাইকে মানতে হবে, যা জাতির পিতার ১ নম্বর কথা। আমাদের কাজ সেবা দেওয়া। আমরা সবাই প্রজাতন্ত্রের চাকর। অত বড়লোকি দেখানোর কিছুই নেই।’

ওই কর্মকর্তার বিষয়ে রওশন আরা আরও জানান, তাঁর কার্যকলাপ ভালো নয়। তিনি ঠিকমতো দায়িত্ব পালন করতেন না। কাজের প্রতি তাঁর ব্যাপক অনীহা আছে।


পাঠকের মতামত

-মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

নিউজটি শেয়ার করুন

কপিরাইট © ২০২২ একতার কণ্ঠ এর সকল স্বত্ব সংরক্ষিত। এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি ।