টাঙ্গাইলে মৃত ভেবে পুলিশে খবর, চিকিৎসা পেয়ে সুস্থ


০৯:০২ পিএম, ৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
টাঙ্গাইলে মৃত ভেবে পুলিশে খবর, চিকিৎসা পেয়ে সুস্থ - Ekotar Kantho
মৃত ভেবে উদ্ধার করা মো. বকুল হোসেন (৩৪)

একতার কণ্ঠঃ রাস্তার পাশে জঙ্গলে পড়ে ছিল এক অজ্ঞাত ব্যক্তি। তাকে মৃত ভেবে তার কাছে যায়নি কেউ। একপর্যায়ে স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ অজ্ঞাত ব্যক্তিকে উদ্ধার করতে গিয়ে দেখতে পায় সে মৃত নয় অচেতন অবস্থায় রয়েছে। এরপর তাকে স্থানীয়দের সহযোগিতায় উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়।

রবিবার (৪ ফেব্রুয়ারি) সকালে টাঙ্গাইলের ভূঞাপুর উপজেলার অলোয়া ইউনিয়নের নিকলা গোপালপাড়া এলাকা থেকে অচেতন অবস্থায় অজ্ঞাত ব্যক্তিটিকে উদ্ধার করা হয়।

উদ্ধারকৃত যুবকের নাম মো. বকুল হোসেন (৩৪)। তিনি জেলার কালিহাতী উপজেলার দুর্গাপুর ইউনিয়নের ভৈরব বাড়ি গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মান্নানের ছেলে।

20230826-141431

থানা সূত্র জানায়, রবিবার সকাল সাড়ে ৮ টার দিকে পুলিশের কাছে খবর আসে নিকলা গোপালপাড়া এলাকায় এক অজ্ঞাত ব্যক্তির মরদেহ রাস্তার পাশের জঙ্গলে পড়ে আছে। এমন খবর পেয়ে ভূঞাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আহসান উল্লাহ্ মরদেহ উদ্ধার করতে গিয়ে ঘটনাস্থলে দেখতে পায় সে অসচেতন অবস্থায় রয়েছে।

এরপর তাকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য ভূঞাপুর উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসকরা তাকে জীবীত ঘোষণা করেন। পরে চিকিৎসায় তিনি সুস্থ হন। পরে জিজ্ঞাসাবাদে তার পরিচয় মিলে। তারপর তার দেওয়া তথ্যমতে, তার পরিবারের সাথে যোগাযোগ করে স্বজনদের কাছে তাকে দুপুরে হস্তান্তর করেন ভূঞাপুর থানা পুলিশ।

উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সের ডা. খাদেমুল ইসলাম বলেন, প্রায় মৃত অবস্থায় হাসপাতালে তাকে আনা হয়। দ্রুত হাসপাতালে আনা না হলে জীবনহানি ঘটতে পারতো।

বকুলের বাবা বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মান্নান বলেন, ৮ম শ্রেণিতে পড়া অবস্থায় বকুলের মানসিক সমস্যা দেখা দেয়। শুরুতে নানা চিকিৎসা করালেও পরে অর্থ সংকটে তা আর সম্ভব হয়নি। মাঝেমধ্যে বকুল নিরুদ্দেশ হয়ে যেতো। এবারই আমার ছেলেকে মৃত প্রায় অবস্থায় উদ্ধার করে পুলিশ। জীবীত অবস্থায় ছেলেকে ফিরে পেয়ে পুলিশের প্রতি ধন্যবাদ জানান তিনি।

এ ঘটনায় ভূঞাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আহসান উল্লাহ্ জানান, স্থানীয়দের মাধ্যমে থানায় খবর আসে অজ্ঞাত এক ব্যক্তির লাশ নিকলা গোপালপাড়া এলাকায় রাস্তার পাশে জঙ্গলে পড়ে আছে। পরে তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থলে পৌঁছে দেখি লোকটি অসচেতন। তারপর তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা জানায় সে জীবীত।

তিনি আরও জানান, এরপর সুস্থ হলে জিজ্ঞাসাবাদে তার পরিচয় জানতে পারি এবং পরিবারকে জানানো হয়। খবর পেয়ে তার পরিবারের লোকজন আসলে আইনি প্রক্রিয়া শেষে বকুলকে স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়। এছাড়াও পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা বকুলের চিকিৎসায় সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছেন বলেও জানান তিনি।


পাঠকের মতামত

-মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

নিউজটি শেয়ার করুন

কপিরাইট © ২০২২ একতার কণ্ঠ এর সকল স্বত্ব সংরক্ষিত। এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি ।