টাঙ্গাইলে ধর্ষণে অন্তঃসত্ত্বা মাদ্রাসা ছাত্রী, অভিযুক্ত কলেজ ছাত্র কারাগারে


১০:৪৪ পিএম, ২৩ অক্টোবর ২০২৩
টাঙ্গাইলে ধর্ষণে অন্তঃসত্ত্বা মাদ্রাসা ছাত্রী, অভিযুক্ত কলেজ ছাত্র কারাগারে - Ekotar Kantho
অভিযুক্ত কলেজ ছাত্র মানিক মিয়া

একতার কণ্ঠঃ‌ টাঙ্গাইলের সখীপুরে ধর্ষণের শিকার হয়ে এক কিশোরী মাদ্রাসা ছাত্রী (১৪) অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার অভিযোগে অভিযুক্ত কলেজ ছাত্র মানিক মিয়াকে (২৫) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

রবিবার (২২ অক্টোবর) ওই কিশোরীর বাবা অভিযুক্ত মানিক মিয়াকে একমাত্র আসামি করে সখীপুর থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়েরের এক ঘন্টার মধ্যেই পুলিশ অভিযান চালিয়ে ওই কলেজ ছাত্রকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়। রবিবার বিকেলে তাকে আদালতের মাধ্যমে টাঙ্গাইল জেলা কারাগারে পাঠিয়েছে পুলিশ।

গ্রেপ্তারকৃত মানিক মিয়া উপজেলার দাড়িয়াপুর ইউনিয়নের প্রতিমা বংকী গ্রামের বাসিন্দা। তিনি স্থানীয় একটি কলেজের অনার্স শেষ বর্ষের ছাত্র।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ওই কিশোরী নানার বাড়িতে থেকে স্থানীয় একটি কওমি মাদ্রাসায় পড়াশোনা করতো। গত রমজান মাসে ওই কিশোরীর ঘরে ঢুকে মানিক মিয়া একাধিকবার ধর্ষণ করেন। মেয়েটি সাত মাসের অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়লে বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হয়। রবিবার মেয়েটির বাবা ওই কলেজ ছাত্রকে আসামি করে থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

সখীপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আল-আমিন জানান, ওই কিশোরীর মেডিকেল করার জন্য তাকে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালের ওয়ান-স্টপক্রাইসিস সেন্টারে পাঠানো হয়েছে।

সখীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শেখ শাহিনুর রহমান জানান, মামলা দায়েরের এক ঘণ্টার মধ্যেই অভিযুক্ত আসামিকে গ্রেপ্তার করে টাঙ্গাইল আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।


পাঠকের মতামত

-মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

নিউজটি শেয়ার করুন

কপিরাইট © ২০২২ একতার কণ্ঠ এর সকল স্বত্ব সংরক্ষিত। এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি ।